অর্শদীপ খলিস্তানি বলে প্রচার! জুবেরের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ বিজেপি নেতার


দুবাই: একটা ক্যাচ মিস, আর তাতেই এই মুহূর্তে গোটা দেশের কাছে যেন খলনায়ক হয়ে গিয়েছেন তিনি। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে গতকাল খেলতে নেমে আঠারোতম ওভারে আসিফ আলির ক্যাচ ফেলে দেন অর্শদীপ সিংহ (Arshdeep Singh)। কোথাও যেন সেটাই ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট হয়ে দাঁড়ায়। তিনি যখন ক্যাচ মিস করেছিলেন, তখন আসিফ শূন্য রানে ছিলেন। সেই আসিফ ৮ বলে ১৬ রান করে যান। ইনিংসের শেষ ওভারে আসিফের উইকেট নিজেই তুলে নিয়েছিলেন অর্শদীপ। তবে ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে। শেষ পর্যন্ত ৫ উইকেটে দুর্দান্ত জয় ছিনিয়ে নেয় পাকিস্তান।

ম্যাচের পর থেকেই বিদ্রুপের শিকার হন তরুণ পেসার অর্শদীপ। তাঁর সঙ্গে খলিস্তানিদের যোগ রয়েছে বলে কটাক্ষ করা হয় তাঁকে। কেউ কেউ তাঁর ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট-সহ সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন মঞ্চে তাঁকে কটূক্তি করেন। তরুণ সিমারের বিরুদ্ধে খলিস্তানি যোগের অভিযোগ তুলে নিজেদের হতাশার বহিঃপ্রকাশ ঘটান তাঁরা।

এরই মাঝে উইকিপিডিয়াতে একটি প্রবন্ধে লেখা হয় যে, অর্শদীপ নিজেকে খলিস্তানি বলে দাবি করেছেন। পরে অবশ্য সেই পোস্ট মুছে দেওয়া হয়। এর নেপথ্যে অল্ট নিউজের প্রতিষ্ঠাতা মহম্মদ জুবেরের হাত রয়েছে বলে তোপ দেগেছেন বিজেপি নেতা এম এস শীর্ষা। হিংসা ছড়াচ্ছেন জুবের, এই মর্মে পুলিশে অভিযোগও দায়ের করেছেন শীর্ষা। বিজেপি নেতা জানিয়েছেন, শিখদের হেনস্থা করার জন্যই ভুয়ো অ্যাকাউন্ট থেকে ট্যুইট করা হচ্ছে।

অর্শদীপের সমর্থনে কী বললেন বিরাট?

ভারত ম্যাচ হারতে সোশাল মিডিয়ায় ক্রমেই অর্শদীপকে আক্রমণ করা হয়। তাঁকে নিয়ে নানারকম কুরুচিপূর্ণ মিমও বানানো হয়। যা কখনওই কাম্য নয়। খেলা শেষে সাংবাদিক সম্মেলনে এসে এবার তরুণ অর্শদীপের পাশেই দাঁড়ালেন বিরাট কোহলি। তিনি বলেন, ”এমন চাপের মুহূর্তে যে কেউ ভুল করতে পারে। এটা একটা বড় ম্যাচ। আর পরিস্থিতি ভীষণ কঠিন ছিল। সিনিয়র প্লেয়াররা তোমার কাছে আসবে, তোমার পাশে থাকবে, তোমাকে তাঁদের থেকে শিখতে হবে। পরবর্তীতে যখন ফের সুযোগ আসবে, তখন যাতে এই গুরুত্বপূর্ণ ক্যাচগুলো তুমি ধরতে পার।’ 

ঠিক কী হয়েছিল?

১৮ তম ওভারের তৃতীয় বলে স্যুইপ মারতে গিয়ে বল আসিফ আলির ব্যাটের কাণায় লেগে অর্শদীপের দিকে যায়। তিনি একটু বেশি সহজে ক্যাচটা ধরতে গিয়ে তা ফস্কান। আসিফ বরাবরই বড় শট খেলার জন্য পরিচিত। জীবনদান পেয়ে এই ম্যাচেও তিনি ঠিক তাই করে দেখালেন। আসিফ ম্যাচ শেষ করতে না পারলেও তাঁর আট বলে ১৬ রানের ক্যামিও পাকিস্তানের জয় সুনিশ্চিত করে দেয়। এই পরাজয়ের ফলে ফাইনালে পৌঁছতে গেলে ভারতকে সুপার ফোরের পরবর্তী দুই ম্যাচে শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তানকে হারাতেই হবে।

আরও পড়ুন: কোহলির ছন্দে ফেরার প্রার্থনা করেছে গোটা পাকিস্তান, বলছেন ‘মারো মুঝে মারো’ খ্যাত মোমিন



Source link

https://sluicebigheartedpeevish.com/u4j5ka2p?key=f9b1fb0aab078545b23fc443bdb5baad

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: